পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের করোনা সেলের একজন জ্যেষ্ঠ কর্মকর্তা আজ দুপুরে প্রথম আলোকে জানিয়েছেন, আবেদনকারী ১৫ হাজার ৩৬ শিক্ষার্থীর মধ্যে এ পর্যন্ত ১২ হাজার ৩৯ শিক্ষার্থীর আবেদন তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগে পাঠানো হয়েছে।

এরপর তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগ টিকার নিবন্ধনের জন্য সুরক্ষা অ্যাপে তাঁদের তথ্য সমন্বয় করবে। সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধনের মাধ্যমে তাঁরা টিকা দিতে পারবেন। এদিকে তথ্যগত অসংগতি থাকায় কিংবা আবেদনের প্রক্রিয়ার শর্ত অনুযায়ী তথ্য অসম্পূর্ণ থাকায় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদনকারী ১ হাজার ১৭৯ জনের তালিকা তথ্য ও যোগাযোগপ্রযুক্তি বিভাগে পাঠানো হয়নি।

চীন ছাড়া টিকার জন্য কানাডাগামী ১ হাজার ৯৯৮ জন, ভারতগামী ১ হাজার ৬২ জন এবং যুক্তরাজ্যগামী ১ হাজার ৩২ জন শিক্ষার্থী নিবন্ধন করেছেন পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে।

এ নিয়ে জানতে চাইলে পররাষ্ট্রসচিব মাসুদ বিন মোমেন আজ বিকেলে এই সময় ২৪৭ কে বলেন, ‘আমাদের শিক্ষার্থীরা যাতে আগামী সেপ্টেম্বর থেকে বিদেশে তাঁদের শিক্ষাবর্ষ শুরু করতে পারেন, সে জন্য বিধিনিষেধের সময় বিভিন্ন দূতাবাস এবং ভিসা প্রক্রিয়া কেন্দ্রগুলোকে অনুরোধ জানানো হয়েছিল। এর ফলে তারা শিক্ষার্থীদের ভিসার আবেদনগুলোর প্রক্রিয়া শেষ করায় শিক্ষার্থীরা ভিসা পেয়েছেন। পরে দেখা গেল, কোনো কোনো ক্ষেত্রে শিক্ষার্থীদের বিদেশি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে যোগ দেওয়ার ক্ষেত্রে পূর্বশর্ত হিসেবে টিকা নেওয়ার বিষয়টি ছিল। এই প্রেক্ষাপটে সংশ্লিষ্ট সবার সঙ্গে আলোচনা করে বিদেশগামী এসব শিক্ষার্থীকে টিকাদান কর্মসূচিতে যুক্ত করার সিদ্ধান্ত হয়েছিল। বয়সের সময়সীমা শিথিল করতে গিয়ে এটা করতে একটু সময় লেগেছিল।

সরকারের পক্ষে কাজটি কে করবে, এ নিয়ে কাজ করতে সিদ্ধান্ত নিতে সময় লেগেছিল। এরই মধ্যে ১৫ হাজারের বেশি শিক্ষার্থী গত এক সপ্তাহে নিবন্ধন করেছেন। এর মধ্যেই শিক্ষার্থীরা টিকা নিতে শুরু করেছেন।’

১৩ জুলাই জারি করা এক পরিপত্রে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানায়, বিদেশগামী শিক্ষার্থীদের করোনাভাইরাসের টিকা নেওয়ার নিবন্ধনের আবেদন জমা নেবে পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। বিদেশগামী শিক্ষার্থীদের প্রয়োজনীয় কাগজপত্র স্ক্যান করে ZIP/PDF ফাইলে vaccine.coronacell@mofa.gov.bd এই ই-মেইলে ১৩ থেকে ২৭ জুলাইয়ের মধ্যে পাঠাতে হবে।

পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় জানিয়েছে, বিদেশগামী শিক্ষার্থীদের পাসপোর্ট, ভিসা (প্রযোজ্য ক্ষেত্রে), শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ভর্তির চূড়ান্ত অনুমোদনের চিঠি, ছাত্রত্ব প্রমাণের সনদ/পরিচয়পত্রের মতো প্রয়োজনীয় কাগজ স্ক্যান করে ই-মেইলে পাঠাতে হবে। ই-মেইল পাঠানোর সময় বিষয় হিসেবে উল্লেখ করতে হবে ‘Application for COVID-19 vaccination for students studying abroad (Passport no-)’।

বিদেশগামী শিক্ষার্থীদের করোনার টিকা পেতে আবেদনের জন্য

(https://forms.gle/6hN5a7P4bHX6r9AS9)

গুগল ফরমটি যথাযথভাবে পূরণ করে জমা দিতে হবে। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে আবেদনের তিন দিন পর টিকার নিবন্ধনের জন্য শিক্ষার্থীদের সুরক্ষা অ্যাপে নিবন্ধনের পরামর্শ দেওয়া হয়েছে। এ ছাড়া এ নিয়ে কোনো তথ্যের জন্য পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের ই-মেইলটিতে যোগাযোগ করতে বলা হয়েছে।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *